Facebook Boost

ফেসবুক বুস্টের ময়নাতদন্ত

চাইলেই অনেক রং-ঢং করে কথা শুরু করতে পারি।এতবেশি মানুষ ফেসবুকে ব্যবসা শুরু করেছে; চিন্তা করলাম, নাহ্! এভাবে হবেনা।একটু খোলাখুলিভাবে কথা বলা দরকার। যারা ফেসবুকে ব্যবসা করছেন; তাদের সবারই ফেসবুক-মার্কেটিং এর ব্যাপারে সঠিক জ্ঞান থাকা চাই।অনেকে কেবল অন্যের মুখে শুনেই ব্যাবসা শুরু করে দেন, কেউবা আবার অন্যকে দেখে। আমার এই পোস্ট পড়ে আপনি খুব ‘বুস্ট জ্ঞানী’ হয়ে যাবেন, এমন কিন্তু মোটেই না। এই পোস্টে আমরা জানবো বুস্ট কি এবং কেন বুস্ট দরকার।“বুস্ট” হলো আলাদিনের চেরাগের মত,ঘষা দিলেই সেল!আর সেল না হলেই চেরাগের দোষ!! 🙄মানুষ এখন বিজ্ঞাপন দেখতে দেখতে বেহুশ! বুস্টের নামে এতই বিজ্ঞাপন যে, আমরা মনে করি এক যায়গা থেকে বুস্ট করিয়ে নিলেই হলো।

জ্বী না! বিষয়টি এমন না।বুস্ট করার অর্থ হলো ‘ছড়িয়ে দেয়া’ অর্থাৎ, আপনার নির্বাচিত মানুষদের কাছে আপনার পোস্টটি পৌঁছে দেয়া।আর এখানেই যত সমস্যা!ভাবুন তো সত্যিকার অর্থে আপনি কি পৌঁছে দিচ্ছেন এবং কাদের কাছে পৌঁছে দিচ্ছেন?তাদের পছন্দ-অপছন্দ নিয়ে আপনি কতটুকু সিরিয়াস?আপনি বিজ্ঞাপনের সূত্রে উপস্থাপন করছেন আপনার পণ্যটি। সেটি কিভাবে হওয়া উচিৎ আপনি জানেন?একটি উদাহরণ দিয়ে বলি – আপনি যখন বাইরে যান, আপনি ছেড়া কিছু পড়েন? চুল আঁচড়ান কেন? নিজেকে যখন আপনি অন্যের কাছে উপস্থাপন করেন, এমন ভাবেই করেন যেনো প্রত্যকের কাছে আপনার গ্রহণযোগ্যতা বৃদ্ধি পায়।আপনার পণ্যের বুস্টের বেলায়ও কি এমন করেন? কারণ, এই পণ্যগুলোকে দিয়ে আপনি আপনার পেজকে উপস্থাপন করছেন, নিজেকে না।আপনার প্রোডাক্ট-এর বিজ্ঞাপন যেই পেজ থেকে যাবে সেটি যদি হয় সদরঘাট এর মতন হিজিবিজি, তাহলে ক্রেতা তা দেখা মাত্রই পালাবে। 😅পেজের উপস্থাপন পেজের মতন হওয়া চাই। চাই-ই চাই! পেজের অবস্থা যাতে সদরঘাটের মতো না হয়ে যায়।এই কথা গুলো জ্ঞান দেওয়ার জন্য নয়।যদি আপনি অনলাইনে প্রফেশনালি ব্যবসা করতে চান বা নিজের অবস্থান তৈরি করতে চান তবে এই বিষয়গুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ।কাস্টমার-এর রুচিকে যদি আপনি মাথায় না রাখেন তবে ব্যবসার প্রসারের কথা ভুলে যান।কাস্টমার এর যদি বিজ্ঞাপন দেখে ভালো না লাগে, কেউ-ই আগ্রহী হবেনা।যেমন, আমার এই লিখা বা বিজ্ঞাপন দেখে মানুষ যে হুমড়ি খেয়ে পরবে তেমন কিন্তু না! আমার টার্গেট হুল্লোর জমানো নয় বরং বুস্ট-এর আদ্যোপান্ত আপনাদেরকে জানানো।বুস্ট করার আগে নিজের পোস্টটিকে আরেকবার দেখুন। পণ্যটির মার্কেট সম্বন্ধে বুঝুন, এরপর ভিজুয়্যাল এর দিকে নজর দিন। সর্বশেষে করতে হবে সঠিক এনালাইসিস।এভাবেই আপনার পণ্য ছড়িয়ে যাবে সব যায়গায়। ☺️

আরো পড়ুন – মার্কেটিং মানেই ব্র্যান্ডিং নয়

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *